সদরপুরের পর এবার ভাঙ্গায় ১৪৪ ধারা

ভাঙ্গা, সদরপুর ও চরভদ্রাসন উপজেলা নিয়ে গঠিত ফরিদপুর-৪ সংসদীয় আসন। ২০১৪ ও ২০১৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্যাহকে পরাজিত করে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সাংসদ নির্বাচিত হন মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার নিক্সন চৌধুরী। এরপর ভাঙ্গা, সদরপুর ও চরভদ্রাসন উপজেলা আওয়ামী লীগ দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়ে।কাজী জাফর উল্যাহ সমর্থিত ভাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আকরামুজ্জামান বলেন, ‘ফরিদপুর জেলা প্রশাসক অতুল সরকার মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। ফরিদপুর-৪ আসনের সাংসদ নিক্সন চৌধুরী তাঁকে “রাজাকার” বলায় আমাদের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের পক্ষ থেকে মানববন্ধনের অনুমতি চেয়ে আবেদন করা হয়। প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করায় আমরা আমাদের কর্মসূচি প্রত্যাহার করেছি।’নিক্সন চৌধুরী সমর্থিত ভাঙ্গা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সাহাদাত হোসেন বলেন, ‘আমাদের পক্ষ থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে কিংবা তার আশপাশের এলাকায় রোববার কোনো কর্মসূচি নেওয়া হয়নি। ভুয়া তথ্যের ভিত্তিতে উপজেলা প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করেছে।’
Source: www.prothomalo.com

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top